Select Language: বাংলা বাংলা हिन्दी हिन्दी English English

চাকরির ইন্টারভিউ : যে বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ

আমাদের সাথে কেন কাজ করতে চান?- প্রশ্নের উত্তর কিভাবে দিবেন

রনি ,সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন স্বনাম ধন্য একটি প্রতিষ্ঠানে। সাক্ষাৎকারের এক পর্যায়ে নিয়োগকর্তা হাসি মুখে প্রশ্ন করলেন ” আমাদের সাথে কেন কাজ করতে চান ? ” প্রশ্ন শুনে একটু ঘাবড়ে গেলেন রনি , কি বলবেন ভেবে পেলেন না।



আমাদের সাথে কেন কাজ করতে চান ? এই ধরনের প্রশ্ন চাকরিদাতারা প্রায়শই করে থাকেন। পূর্ব প্রস্তুতি না থাকলে এ প্রশ্নের উত্তর দেয়া একটু কঠিন। ঠিক বোঝা যায় না কি বললে উত্তরটি সঠিক হবে ও গ্রহণযোগ্যতা পাবে। তাই জেনে নেওয়া ভালো কিভাবে এই প্রশ্নের উত্তর দিবেন ।


কেন এই প্রশ্নটি করা হয়?

কর্মী নিয়োগ প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি বিনিয়োগ। নিয়োগপ্রাপ্ত একজন প্রার্থী পিছনে প্রতিষ্ঠানকে অর্থ ও সময় দুটোই ব্যয় করতে হয়।কোনো প্রতিষ্ঠানই চাইবে না এই ব্যয়ের অপচয় করতে।তাই তারা নিয়োগের সময় এমন একজন কে নিয়োগ করতে চান যার মাঝে প্রতিষ্ঠানের সাথে দীর্ঘ মেয়াদে কাজ করার ইচ্ছা আছে। তাই নিছক সাধারণ একটি প্রশ্ন মনে হলেও প্রশ্নটি মোটেও সাধারণ নয়। এই প্রশ্নটির মাধ্যমে চাকরিদাতা যে বিষয় জানতে চান তা হলো

১. আপনি প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে ভালো মতো গবেষণা করেছেন কিনা।

২. আপনি কেবল টাকার জন্য চাকরিটি করতে চাইছেন নাকি চাকরিটির সাথে আপনার দীর্ঘমেয়াদি ক্যারিয়ার তৈরী করার লক্ষ্য জড়িত আছে।


Check Also:


Like Our Facebook Page:


Select Language: বাংলা বাংলা हिन्दी हिन्दी English

English

৩. প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব সংস্কৃতির সাথে আপনি কতটুকু মানানসই বা খাপি খাইয়ে চলতে পারবেন কি না।

৪. সর্বোপরি, আপনার এই প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করার দৃঢ় ইচ্ছা আছে কিনা


যেভাবে উত্তর দিবেন

এই প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য দুটি মূল বিষয়কে তুলে আনতে হবে। এই প্রতিষ্ঠানে প্রতি আপনার কাজ করার ইচ্ছা এবং যে কাজটির জন্য আবেদন করেছেন সেই কাজের প্রতি আপনার কতটুকু আগ্রহ আছে।এই দুটি বিষয় তুলে আনার জন্য যা প্রয়োজন তা হলো

 

ক. প্রতিষ্ঠানের উপর গবেষণা

প্রতিষ্ঠানটির উপর গবেষণা করুন।প্রতিষ্ঠানের সাথে আপনার লক্ষ্য কিভাবে মিলে যায় তা ব্যখ্যা করার জন্য কোম্পানির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে ভালো ধারণা নিন। দেখুন কোম্পানি কি করছে , কিভাবে করছে , মার্কেটে তাদের অবস্থান কেমন , কোন ধরণের কাজ তারা বেশি করছে ইত্যাদি।গবেষণাকে আরো ফলপ্রসূ করতে কোম্পানিতে কাজ করে এমন কাউকে খুঁজে বের করতে পারেন , তাদের কাছ থেকে প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরীণ সংস্কৃতি জেনে নিন।জেনে নিন কর্মীদের প্রতি তাদের আচরণ , নমনীয়তা ইত্যাদি। প্রতিষ্ঠানের নতুন কোন পণ্য নিয়ে কাজ করে থাকলে সেই পণ্যের মার্কেটের অবস্থা, সম্ভাবনা, কেন পণ্যটি ভালো বা খারাপ তা নিয়ে গবেষণা করুন।এর জন্য কোম্পানির প্রেস রিলিজ দেখতে পারেন। প্রেস রিলিজ এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন প্রতিষ্ঠানটির নতুন আপডেট যা আপনার গবেষণাকে আরো তথ্য বহুল করবে।প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ সংস্কৃতি জানার জন্য প্রতিষ্ঠানের সোশ্যাল মিডিয়া পেজ (Facebook Page) দেখতে পারেন তা থেকে ভালো ধারণা পেতে পারেন এবং প্রতিষ্ঠানে কারা কাজ করছে তাদের সম্পর্কেও জেনে নিতে পারেন লিঙ্কডইন (Linkedin) এর মাধ্যমে। এই সকল গবেষণার ফলে প্রতিষ্ঠানটির সম্পর্কে আপনার ভালো ধারণা তৈরি হয়ে যাবে তার পাশাপাশি আপনার মাঝেও আগ্রহ তৈরি হবে কেন আপনি প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করতে চান। যেমন হতে পারে আপনি জেনেছেন প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ সংস্কৃতি অনেক বন্ধু ভাবাপূর্ণ এবং তারা তাদের কর্মীদের ট্রেনিং এর মাধ্যমে পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি করে থাকে।এই বিষয়গুলো যদি আপনাকে আগ্রহী করে থাকে তা কিন্তু খুব ভালো একটি পয়েন্ট হতে পারে এই প্রশ্নের উত্তরটি দেয়ার জন্য।


 

খ. একই লক্ষ্য

আপনি যদি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে গবেষণা করে থাকেন তাহলে এখন সময় দ্বিতীয় ধাপের। এই ধাপে বের করুন আপনি কি করতে ভালোবাসেন। কি আপনাকে বেশি অনুপ্রাণিত করে এবং কোন বিষয়ে আপনি সব থেকে বেশি দক্ষ। কারণ একজন ভালো কর্মী সেই যে তার কাজকে ভালোবাসে। আর কাজকে আপনি তখনি ভালবাসতে পারবেন যখন তা আপনার লক্ষ্যের সাথে মিলে যায়। এর জন্য প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য থেকে পাওয়া যে বিষয়গুলো আপনাকে আকৃষ্ট করে তার একটি তালিকা তৈরি করুন। যেমন হতে পারে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করা, সুন্দর কর্ম পরিবেশ, কাস্টমদের বেশি গুরুত্ব দেয়া ইত্যাদি। এর পর এই বিষয়গুলোকে সাজিয়ে আপনার উত্তরটি তৈরি করুন।যেমন আপনি যদি দেখেন প্রতিষ্ঠানটি কাস্টমার সাপোর্টকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে তাহলে বলুন আপনি কিভাবে প্রতিষ্ঠানের এই জায়গাটিতে নিজেকে সংযুক্ত করতে চান এবং কিভাবে তা প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য অর্জনে সহায়ক হবে।


 

গ. অবশেষে উত্তর

আপনি এখন জানেন প্রতিষ্ঠানটি কোথায় পৌঁছাতে চায় , কিভাবে তা চায় এবং তার জন্য প্রতিষ্ঠানটি কি করছে। শুধু তাই নয় আপনি জেনে গেছেন প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরীণ সংস্কৃতি, তাদের মূল্যবোধ কিভাবে আপনার লক্ষ্যের সাথে মিলে যায়।আপনি জেনেছেন কোন কোন বিষয়গুলো আপনার লক্ষ্য পূরণে সহায়তা করবে। এখন সবগুলো বিষয় এক সাথে করুন। এর পর আপনার উত্তরটি ঠিক করুন যাতে এই বিষয়গুলোর সন্নিবেশ থাকবে এবং তা উপস্থান করুন নিয়গকর্তাদের সামনে।

Leave a Reply


Select Language: বাংলা বাংলা हिन्दी हिन्दी English English